নিজেকে সুস্থ্য রাখার উপায়

Posted by admin 26/10/2015 0 Comment(s)

নিজেকে সুস্থ্য রাখার উপায়

আমরা প্রতিদিনের টানাপড়েনের ফাঁকে নিজেদের শরীরের খেয়াল রাখার কথা একদম ভুলে যাই। কিংবা আলসেমিতে গা ভাসিয়ে দিই। ফলে অজান্তে এবং অবশ্যই অনিচ্ছাকৃতভাবে আমরা শরীরের কাছে হয়ে উঠি ভিলেন! কিন্তু সামান্য কয়েকটা জিনিস মাথায় রাখলেই আর এই অপরাধ করা হবে না শরীরের বিরুদ্ধে। একটা কথা আছে না, মর্নিং শোস দ্য ডে! যার অর্থ সকাল দেখলেই বোঝা যায় দিন কেমন যাবে। শরীরের দেখভালের ক্ষেত্রেও এটিই গোল্ডেন রুল বলতে পারেন। সকাল সকাল যে পাঁচটি জিনিস নিয়মিত করলে আপনি অনায়াসে থাকতে পারবেন সুস্থ, সতেজ এবং ফুরফুরে তা কিন্তু মোটেই খটমট নয়। বরং খুবই সহজ। শুধু অভ্যেসটা তৈরি করতে হবে।

প্রতিদিন একটা নির্দিষ্ট সময়ে ঘুম থেকে উঠুন
আমাদের শরীরের ভিতরে যে ঘড়ি আছে তাকে সার্কেডিয়ান ক্লক বলে। নিয়মের এদিকওদিকে এর কাজের গতি নষ্ট হয়ে যায়। আর এর মেজাজ বিগড়ালেই শরীরের গতিবিধি পালটে যায়। এই ঘড়ি তখনই কাজ করা শুরু করে যখন শরীরে এসে পড়ে সূর্যের আলো। ভোরের আলো ও হাওয়া স্বাস্থ্যের জন্যে খুবই উপকারী। উপরন্তু প্রতিদিন একটা নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমাতে গেলে এবং ঘুম থেকে উঠলে সার্কেডিয়ান ক্লক মহাশয় বশে থাকেন এবং অনিদ্রা সংক্রান্ত সমস্যাও ভোগায় না।
খালি পেটে লেবুর জল খান
প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস কুসুম গরম জলে অর্ধেক লেবুর রস মিশিয়ে খান। এতে একদিকে যেমন আমাদের হজমের নানা সমস্যার সমাধান হয় অন্যদিকে অতিরিক্ত মেদ কমাতেও সাহায্য করে।
নিয়মিত ব্যায়াম করুন
শরীরকে রোগমুক্ত, চনমনে এবং স্ট্রেস ফ্রি রাখার জন্যে এক্সারসাইজের কোনও জুড়ি নেই। সেই এক্সারসাইজ যে কোনও রকমের হতে পারে। জিমে ওয়ার্কআউট হোক বা যোগব্যায়াম, নাচ কিংবা ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ। সকালে ঘুম থেকে উঠে অন্তত ১০-১৫ মিনিট নিয়ম করে এক্সারসাইজ করুন। দেখবেন খুব তাড়াতাড়ি জীবনে এর প্রভাব বুঝতে পারবেন।
ব্রেকফাস্ট মাস্ট
সকালে উঠে খালি পেটে দিন শুরু করবেন না। রাতে যেহেতু অনেকটা সময় পেটল খালি থাকে, তাই সকালে ঘুম থেকে ওঠার এক ঘন্টার মধ্যে সঠিক পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার না পেলে শরীর স্টোরড ফ্যাট থেকে প্রয়োজনীয় এনার্জি সংগ্রহ করতে থাকে। ব্রেকফাস্টে কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন এবং ফ্যাট সমৃদ্ধ ব্যালেন্সড ডায়েট যেন অবশ্যই থাকে। সেই দিকে খেয়াল রাখবেন।
নিজেকে খুশি করুন
এসব থেকে যে জিনিসটি সব থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ, তা হল নিজেরে খুশি রাখা। সকালে উঠে প্রতিদিন অন্তত ১৫ মিনিট এমন কোনও কাজ করুন যা আপনাকে আনন্দ দেয়। দেখবেন সারা দিন চনমনে থাকার এনার্জি পাবেন। আর নিজে ভালো থাকলে তবেই না অন্য সবাইকে ভালো রাখতে পারবেন!
Ref Kaler kantha online

 
Brandshowrooms.com's photo.
 

Write a Comment