~ঃ ..........বেড়ানো কেন জরুরি.......... ঃ~

Posted by admin 26/10/2015 0 Comment(s)

~ঃ ..........বেড়ানো কেন জরুরি.......... ঃ~

মানসিক চাপ আর উদ্বিগ্নতা ঝেড়ে ফেলা? আপনার পক্ষে বিষয়গুলো খুবই সহজ কাজ হবে যদি আপনি একজন ভ্রমণপিপাসু মানুষ হন। ভ্রমণে যতো পথ পাড়ি দেবেন মনের মধ্যে জমে থাকা চাপ, বিষণ্নতা সব কিছুই কমে যেতে থাকবে আর সেইসঙ্গে বাড়তে থাকবে সামাজিক দক্ষতা।

ভ্রমণের সবচেয়ে বড় সুফল হচ্ছে নতুন স্থান দেখা আর নতুন নতুন মানুষের সঙ্গে পরিচয় তৈরি হওয়া। যদি কাজের চাপে বা কোনো পরিস্থিতিতে মন হাঁসফাঁস করতে থাকে তাহলে এই জমে থাকা চাপ আর উদ্বিগ্নতা কমাতে বেড়িয়ে আসুন কোথাও। বেড়িয়ে আসার পর নিজের মধ্যে নতুন করে উদ্যম খুঁজে পাবেন, মানসিক চাপ কমে যাবে। কাজ থেকে নিজেকে কিছুটা বিশ্রাম দিয়ে সেই সময়টুকু কাজে লাগানোর পরিকল্পনা করতে পারেন।

অনেকে হয়তো ভাবেন এসময়টা বাড়ির দৈনন্দিন কাজে লাগালে সময়ের সদ্ব্যবহার করা হয়। তবে প্রাত্যহিক জীবনের গণ্ডি পেরিয়ে কিছুটা মুক্ত জীবনের স্বাদ নিতে ভ্রমণ খুবই জরুরি। নিজের ওপর আত্মবিশ্বাস বাড়াতে নিজের চিন্তাগুলোকে গুছিয়ে আনতে ভ্রমণ কাজে লাগতে পারে।

ভ্রমণের পরিকল্পনা করার পর থেকেই মনের মধ্যে এক ধরনের উত্তেজনা তৈরি হবে। ভ্রমণে কী কী সঙ্গে নেবেন তার তালিকা তৈরি কিংবা ভ্রমণে গিয়ে কীভাবে সময় কাটাবেন তা নিয়ে ভাবতে ভাবতে আপনার মনে এক নতুন উদ্দেশ্য তৈরি হবে। নিজের এই লক্ষ্য পূরণ করার সাফল্য আপনাকে যে আত্মবিশ্বাস এনে দেবে তা আপনার অন্যান্য কাজের ওপরও ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

অনেক সময় দেখবেন ভ্রমণে একরকম পরিকল্পনা করে বের হয়েছেন কিন্তু শুরু থেকেই আপনার পরিকল্পনা মাফিক কিছুই হচ্ছে না। হয়তো দেখবেন আপনার গন্তব্যে উদ্দেশ্যে বের হওয়ার পর টিকিট ভুলে গেছেন, কিংবা খারাপ আবহাওয়ার কারণে বের হতে পারছেন না কিংবা যাত্রা বাতিল করতে হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে মোটেও হতাশ হবেন না। একটু চেষ্টা করলে বিকল্প ঠিকই খুঁজে নিতে পারবেন। আর যখন ভ্রমণে বেরিয়ে এরকম কাজের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারবেন তখন আপনার মনটাও নমনীয় হয়ে উঠবে। ভ্রমণ শেষে দেখবেন বিভিন্ন পরিস্থিতিতে মনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার প্রবণতা তৈরি হয়ে যাবে।

ভ্রমণে আপনি যে বিষয়টি শিখবেন তা হচ্ছে ধৈর্য। আপনি খেয়াল করবেন ভ্রমণে বের হওয়ার পর থেকে আপনাকে বিভিন্ন সময় প্রয়োজন অনুযায়ী অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে। কখনও লাইনে দাঁড়িয়ে, কখনও বা প্লেনের জন্য আবার কখনও রেস্তোরাঁয় খাবারের জন্য অপেক্ষা। এই অপেক্ষায় থাকার বিষয়টি আপনার ধৈর্য আরও বাড়িয়ে তুলবে। আপনি আপনার অপেক্ষার সময়টুকু নতুন নতুন মানুষের সঙ্গে কথা বলবেন। অনেক সময় চুপচাপ দাঁড়িয়ে আরও অনেকের সঙ্গে অপেক্ষা করবেন।
বিভিন্ন পরিস্থিতিতে কীভাবে মাথা ঠান্ডা রেখে জীবনকে উপভোগ করবেন ভ্রমণের মাধ্যমে শিখতে পারবেন আপনি।

 
Brandshowrooms.com's photo.

Write a Comment